মিনিবাস-নৈশ্য কোচের মুখোমুখি সংঘর্ষে

সড়ক দুর্ঘটনায় ১০জন নিহতের ঘটনায় বালিয়াডাংগী উপজেলা চেয়ারম্যানের শোক প্রকাশ

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় বড় খোচাবাড়ি নামক স্থানে মিনিবাস-নৈশ্য কোচের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১০ জন নিহত ও অন্তত আরো ২৫ জন জন আহতের ঘটনায় বালিয়াডাংগী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েল আজ সন্ধায় এক বিবৃতিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের আত্নার মাগফিরাত কামনা ও তাদের শোকা আহত পরিবারের প্রতি গভীর শোক জ্ঞাপন করেন এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য যে,  শুক্রবার (২ আগস্ট) সকাল ৮টার দিকে সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের ঠাকুরগাঁও-ঢাকা মহাসড়কের খোঁচাবাড়ি বলাকা উদ্যানের সামনে দুর্ঘটনায়

নিহতরা হলেন- নিশাত পরিবহনের চালক চায়না (২৮), ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার লক্ষীপুর মালতিচুয়া এলাকার ছুটু মোহাম্মদের ছেলে আব্দুল মজিদ (৫৫), বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সনগাঁও গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে আব্দুর রহমান (৪৫), একই উপজেলার জিয়াবাড়ী গ্রামের মৃত মতো তেলির ছেলে মোস্তফা আহম্মেদ (৪০) ও তার স্ত্রী মনসুরা বেগম (৩৫), দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার গলিরামের স্ত্রী মঙ্গলী রানী (৭০), একই এলাকার মনেস্বরের স্ত্রী জবার (৩৫) ও বালিয়াডাঙ্গী শহীদ আকবর আলী সরকারি কলেজের কৃষি অনুষদের ছাত্র দিনাজপুর বীরগঞ্জের আব্দুর রউফ(১৯)।

ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন মাস্টার মফিদার রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, দুর্ঘটনায় আহতদের সার্বক্ষনিক খোজ খবর নেওয়া হচ্ছে। নিহত প্রতি জনের জন্য ১০ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। যা তাদের পরিবারে হাতে আগামী রোববার প্রদান করা হবে।