আওয়ামী লীগ জাপা প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়ায় ভোটারদের আগ্রহ কম ছিল: জিএম কাদের

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ জাপা প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়ায় রংপুরের উপ-নিবার্চন ভোটারদের আগ্রহ কম ছিল। এবারের নির্বাচন এবং ৯০ এর পর থেকে প্রতিটি নির্বাচনে এখানে লাঙ্গল জয়ী হয়েছে। যেহেতু আওয়ামী লীগ আমাদের প্রার্থীকে সমর্থন দিয়ে তাদের প্রার্থী প্রত্যাহার করেছেন। সে কারণে এখানে তেমন কোন প্রতিযোগিতা হওয়া কথা নয়। যেহেতু আমাদের লাঙ্গলের প্রার্থী বিজয়ী হবে। সে কারণে অনেকেই এখানে ভোট দেয়ার ব্যপারে আগ্রহ দেখাননি। যেদিন আওয়ামী লীগ প্রার্থী প্রত্যাহার করেছে এবং আমরা আমাদের প্রার্থী নিয়ে এগিয়ে এসেছি। সঙ্গে সঙ্গে রংপুরের মানুষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, লাঙ্গলকে বিজয়ী করবে। আমাদেরকে বিজয়ী করবে। সেকারণে এখানে ভোটে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা কিংবা প্রতিযোগিতা সেরকম কোন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। হওয়ার কথাও ছিল না। দরকারও ছিল না। সে কারণে হয়তো মানুষ বেশি ভোট কেন্দ্রে আসেনি বলে আমার বিশ্বাস। তথাপি আমাদের প্রার্থী বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন।

সোমবার দুপুরে রংপুর মহানগরীর পল্লীনিবাসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।
এ সময় কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা যুগ্ম সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সম্পাদক শাফিউল ইসলাম শাফি, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আব্দুল বারীসহ দলের অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ক্যাসিনো অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে জিএম কাদের বলেন, শুরুতেই আমরা প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছিলাম। শুধু ক্যাসিনো নয়, যেকনো ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানের ব্যাপারে আমরা মহাজোটের নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রতি দিয়েছিলেন। আমরা চাইবো এই অভিযান যেন সাফল্যজনকভাবে এগিয়ে যায়। আমরা প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বাস দিয়েছি। এখনও দিতে চাই আপনার এই কাজে আমরা আপনার পাাশে থাকবো। যেভাবে সরকার সহায়তা চাইবে। সেভাবে সহায়তা করবো
জিএম কাদের বলেন, সাদের জন্য পদ পদবি স্বাভাবিকভাবেই আসবে। বিষয়গুলোর সিদ্ধান্ত স্বাভাবিকভাবেই হবে। গুজবের ভিত্তিতে হবে না। আলাপআলোচনা ও বাস্তবতার ভিত্তিতেই সেটা হবে। আমরা সামনের দিকে সেটা সিদ্ধান্ত নিবো। ভাতিজা আসিফের ব্যপারে তিনি বলেন, এ বিষয়ে প্রসেস আছে। সেগুলো গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জিএম কাদের বলেন, আমি মনে করি না যে সাংগঠনিকভাবে আমরা দুর্বল। এখানে জনসমর্থন আছে প্রবল। এবং সংগঠন শক্তিশালী আছে। আমি মনে করি এসব কারণেই আমরা বিজয়ী হয়েছি এবং ভবিষ্যতে আমাদের এই বিজয় ধরে রাখতে আমাদের কোন অসুবিধা হবে না। এই বিজয়কে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবো এবং আরও বেশি অন্যান্য বিজয়ের মাধ্যমে এই ধারাবাহিকতাকে শক্তিশালি করবো।