চিরিরবন্দরে ১৪৩ টি পূজা মণ্ডপ ॥ শেষ সময়ে ব্যস্ত শিল্পীরা

আর কয়েকদিন পরেই হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হতে যাচ্ছে। আর এই পূজাকে ঘিরে উপজেলা জুড়ে চলছে প্রতিমা সাজানোর শেষ কাজ। ফলে ব্যস্ত সময় পার করছে শিল্পীরা। এবার দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় ১৪৩টি মন্দিরে দুর্গাপূজা পালিত হবে বলে জানিয়েছেন চিরিরবন্দর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র রায়। পূজার সময় যত ঘনিয়ে আসছে ততই বাড়ছে প্রতিমা কারিগরদের শেষ সময়ের ব্যস্ততা।

দম নেওয়ারও ফুসরত নেই তাদের। রাত-দিন চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। উপজেলার ১২টি ইউনয়নের সরেজমিন ঘুরে একই চিত্র দেখা গেছে। প্রতিমা শিল্পীদের নিপুণ আঁচড়ে তৈরি হচ্ছে এক একটি প্রতিমা। নিজের মায়ের মতো অতি ভালবাসায় তৈরি করা হচ্ছে দুর্গা, সরস্বতী, লক্ষ্মী, কার্তিক, গণেশ, অসুর ও শিবের মূর্তি। হৃদয়ের ভালবাসায় চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। প্রতিমার আকার ও শৈল্পিক গঠন অনুযায়ী প্রতিমা শিল্পীরা ১০ হাজার থেকে দেড় লাখ টাকা পর্যন্ত পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন।

চিরিরবন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পিপিএম মো: মাহবুবুর রহমান সরকার জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তার সকল প্রস্তুতি চলছে। উপজেলায় ৫২টি ঝুঁকিপূর্ণ পূজাম-প চিহ্নিত করা হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা ধর্মীয় ভাবগাম্ভীযের মধ্যেই পালিত হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: গোলাম রব্বনী জানান, উপজেলায় ১৪৩টি পূজা ম-পে নির্ধারিত বরাদ্বের আশ্বাস পাওয়া গেছে। তা আসা মাত্র সব গুলো ম-পে প্রদান করা হবে।