ঈদের দিন রংপুরের দমদমা সেতুর উপর দিয়ে যান চলাচল বন্ধ

ঈদ-উল-আযহার দিন রাত থেকে ভোর পর্যন্ত টানা আট ঘন্টা ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের দমদমা সেতুর উপর দিয়ে সকল ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। সেতুর মেরামত কাজের সময়ে বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে অনুরোধ জানিয়েছে সড়ক বিভাগ।
বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন সড়ক ও জনপথ বিভাগ রংপুরের সহকারি নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল খাঁন।

তিনি জানান, রংপুর ও মিঠাপুকুরের মাঝামাঝি স্থানে অবস্থিত দমদমা সেতুটি ঈদ-উল-আযহার দিন রাত ১০টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত মেরামত করা হবে। উক্ত সময়ে সেতুর উপর দিয়ে সকল ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। টানা আট ঘন্টার এই কাজের সময়ে রংপুর-মিঠাপুকুর মহাসড়কে চলাচলকারী যানবাহনকে বিকল্প সড়ক হিসেবে রংপুর (টার্মিনাল)-বদরগঞ্জ-মধ্যপাড়া-মিঠাপুকুর সড়ক সড়ক ব্যবহার করতে হবে।

ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের রংপুরস্থ ‘দমদমা সেতু’ মেরামতের বিষয়টি ইতোমধ্যে স্থানীয় পত্রিকায় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিয়ে জনসাধারণ ও যানবাহন চালকদের অবগত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, দমদমা সেতুটি ঢাকা (মিরপুর)-উথুলি-কাশিনাথপুর-বগুড়া-রংপুর-বাংলাবান্ধা জাতীয় মহাসড়কের (এন-৫) ৩১৭তম কিলোমিটারে (রংপুর ও মিঠাপুকুরের মাঝামাঝি স্থানে) অবস্থিত। রংপুর মহানগরীর ধর্মদাস এলাকায় ঘাঘট নদীর উপর অর্ধশত বছর আগে সেতুটি নির্মাণ করা হয়।

স্থায়িত্বের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া এ সেতুটির বেশ কয়েক স্থানে দেখা দিয়েছে ফাটল। স্থানীয় সড়ক বিভাগ থেকে সেতুর নিচে বালির বস্তা দিয়ে তৈরি করা হয়েছে বিকল্প পিলার। গাইবান্ধা ছাড়া রংপুর বিভাগের সাত জেলা ও রাজশাহী বিভাগেরও কিছু জেলার মানুষ দমদমা সেতুর ওপর নির্ভরশীল। সেতুটি দিয়ে বর্তমানে প্রতিদিন দুই হাজারেরও বেশি যানবাহন চলাচল করছে।