বিয়ের দাওয়াত খেয়ে পরদিন অসুস্থ্য অর্ধশতাধিক হাসপাতালে ভর্তি

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার ধনিপাড়া গ্রামে বিয়ের দাওয়াত খেয়ে প্রায় অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ এবং শিশু হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। জানা যায় ধনিপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের পুত্র মাজেদুর এর বৌভাত অনুষ্টিত হয় সোমবার । বৌভাত অনুষ্টানের পরদিন মঙ্গলবার দুপুর একটার দিকে পঞ্চগড় সদর আধুনিক হাসপাতালে দুইটি পরিবারের চারজন ভর্তি হয়েছে।সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায় রহিমা বেগম (৩২) তার ছেলে আব্দুর রহমান (৭) খালেদা আক্তার চম্পা (২০) লোকমান (৫) বমি জ্বর মাথা ব্যাথা নিয়ে ভর্তি হয়। এছাড়াও বোদা প্রায় পঞ্চাশ জন নারী পুরুষ একই বৌভাত অুনুষ্টানে দাওয়াত খেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তির খবর পাওয়া যায়। বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় মঙ্গলবার ধনিপাড়া ও পাশের গ্রামের প্রায় ৪৫জন পেটের পিরা,বমি ও পাতলা পায়খানা নিয়ে দাওয়াত খাওয়া রোগে আক্রান্ত হয়। আক্রান্তরা হলেন,দাওতকারী সেরাজুল ইসলাম (৫০)সাদ্দান হোসেন (২৫)রফিকুল ইসলাম (৫৫),আনোয়ার হোসেন (৪২).মকছেদা খাতুন (২২).বানু বেগম (৪২).জরিনা বেগম(৪৮),রাবেয়া খাতুন (২৫),রিফাত আক্তর (৪).নাইম ইসলাম (১৩),শা্হীন (৫).সুলতানা মৌ (৬.) সহ প্রায় ৪৫জন রোগী। ধনিপাড়া গ্রামের শাহজাহান তার মেয়েকে নিয়ে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বিকেলে তার সাথে কথা বলে জানাযায় গতকাল পাশের বাড়ির দাওয়াত খেয়ে আমার মেয়ে অসুস্থ্য হয়েছে আমি নিজেও অসুস্থ্য। ওসমান নামে একজন গ্রামবাসীর সাথে কথা হলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন গতকাল দাওয়াত খাওয়ার পর মঙ্গলবার ভোর রাতে আমি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছি।
পঞ্চগড় এর সিভিল সার্জন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জরুরি বিভাগে সাংবাদিকদের জানায় খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারনে বমি পাতলাপায়খানা ও জ্বর এর মত রোগে আক্রান্ত হতে পারে। তবে ২৪ ঘন্টা পার না হলে রোগীরা আশংকামুক্ত নয়। আমি নিজেই এখন বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ পরিদর্শনের প্রস্তুতি নিয়েছি। এছাড়াও তিনি রোগীদের আতংকিত না হওয়ার পরামার্শ দিয়েছেন।
বোদা উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডা,জাহিদ হাসান জানান খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারনে ডায়রিয়া দেখা দিয়েছে দুই দিনের মধ্যে স্বাভাবিক হয়ে আসবে।