ডিমলায় পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু।

নীলফামারীর ডিমলায় আব্দুল মমিন (২) নামের এক শিশু পুকুরের পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে। নিহত শিশু উপজেলার সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের উত্তর তিতপাড়া দিঘোলটাড়ী গ্রামের আমিনুল ইসলামের পুত্র।
সরেজমিনে গিয়ে শিশুটির পরিবার ও এলাকাবাসীর সুত্রে জানা যায়, শিশু মমিন শুক্রবার (২৩-আগস্ট) বিকাল আনুমানিক সারে ৪টার দিকে খেলতে খেলতে সবার অজান্তে বাড়ির পাশে থাকা পুকুরে পড়ে যায়। বাড়ির লোকজন কেউ শিশুটিকে না দেখলেও শিশুটির একই বয়সের খেলার সাথী রিশামনি ও মসলেমা আক্তার পুকুরের পানিতে মুখ থুবড়ে পরে থাকা দেখে তাকে উদ্ধার করার চেষ্টা করতে গিয়ে তারাও দুজনে পানি পরে যায়। পরে ওই দুই শিশুর আত্মচিৎকার শুনে এলাকাবাসী দৌড়ে এসে মমিনকে পানিতে ডুবে থাকা দেখতে পেয়ে দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় তিন শিশুকেই। শিশু রিশামনি ও মশলেমা আক্তার প্রাণে বেঁচে গেলেও বাঁচতে পারেনি শিশু মমিন। হাসপাতালের চিকিৎসক শিশু মমিনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ডিমলা সদর ইউনিয়ন ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সরকার। এ বিষয়ে ডিমলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মফিজ উদ্দিন শেখ ঘটনার বিষয়ে নিশ্চিত করে বলেন, শিশুটি পরিবারের সকলের অগোচরে বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে পুকুরের পানিতে পড়ে নিহত হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। সেই সাথে আরো দুই শিশু আহত হয়েছিল কিন্তু তারা প্রাণে বেঁচে গেছে। এবং নিহত শিশুর পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে লাশ দাপনের অনুমতি দেয়া হয়।