দেবীগঞ্জে লিভার ক্যানসারের রোগীর আত্মহত্যা

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে আবুল কাশেম(৫২) নামে এক ব্যক্তি গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে। আজ সোমবার উপজেলার পামুলী ইউনিয়নের ভূল্লীপাড়ার এক লিচু বাগানে দুপুরের পরে এ ঘটনা ঘটে। মৃত আবুল কাশেম উপজেলার লক্ষীরহাট গ্রামের মৃত আ: রহমান সরকার এর ছেলে।
নিহতের পরিবার সুত্রে জানা যায়, আবুল কাশেম দীর্ঘদীন যাবৎ লিভার ক্যানসারে ভুগতেছিল। ইতিমধ্যে তাকে ভারতেও চিকিৎসা করানো হয়েছে। গতকাল সে ঢাকা থেকে কেমোথেরাপি দিয়ে বাসায় এসেছে। আজ দুপুরে সে গ্রামের বাড়িতে যাবে বলে ডিসকভার ১২৫সিসি গাড়ী নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এরপর বিকাল ৩.৩০টার দিকে পার্শ্ববর্তী গ্রামের লোকজন গলায় দড়ি দিয়ে আবুল কাশেম কে জিগার গাছের সাথে ঝুলতে দেখে বাড়িতে ফোন করে জানায়।
পামূলী ইউপি চেয়ারম্যান ফজলে হায়দার রংপুরের কন্ঠ.কম কে বলেন, খবর পেয়ে আমি সেখানে ছুটে যায় এবং গলায় দড়ি দিয়ে গাছের সাথে তাকে ঝুলতে দেখি। সে দীর্ঘদিন অসুখে ভুগতেছিল। আমার মনে হয় সে অসুখের কারনে আত্মহত্যা করেছে।
দেবীডুবা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক রংপুরের কন্ঠ.কম কে বলেন, লোকজন ফোন দিয়ে আমার লিচু বাগানে আবুল কাশেম আত্মহত্যা করেছে বলে আমাকে জানালে ঘটনাস্থলে আমি ছুটে যেয়ে তার মৃত্যুর বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হই।
পঞ্চগড়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নু: এমং মারমা মং আবুল কাশেমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে রংপুরের কন্ঠ.কম কে বলেন, মৃতের পরিবারের লোকজন মৃত কে পোষ্টমর্টেম না করতে বলে। আমি তাদেরকে আইন অনুযায়ী কাজ করার পরামর্শ দিই।
দেবীগঞ্জ থানার ওসি(তদন্ত) শাহ আলম আবুল কাশেমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে রংপুরের কন্ঠ.কম কে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে একটি ১২৫সিসি মটরসাইকেল ও তার পকেট থেকে একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে এবং আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।