ডোমারে মাদ্রাসা’র ছাত্র ইয়াহিয়া কে বাঁচাতে বাবার আকুতি।

নীলফামারীর ডোমারে মাদ্রাসা’র ছাত্র ইয়াহিয়া কে বাঁচাতে তার বাবা সাহায্যের জন্য মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।

সরেজমিনে জানাযায় উপজেলার পাঙ্গা মটুকপুর ইউনিয়নের নদীয়া পাড়া গ্রামের ঈমাম ময়নুল হক এর পুত্র ইয়াহিয়া(১২) জন্ম থেকে তার হার্ড ফুটা ও হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে কোন রকমে বেঁচে আছে।ইয়াহিয়া ডিমলা উপজেলার ডাঙ্গার হাট বসুনিয়া পাড়া হাফেজিয়া মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র, বয়স বাড়ার সাথে সাথে তার শারিরীক অবস্থা সোচনীয় হয়ে পরেছে। ডাঃ তওফিক শাহরিয়ার হক হৃদ রোগ বিশেষঞ্জ এবং ডাঃ হানিফ চৌধুরী ন্যাশনাল হার্ড ফাউন্ডেশন হাসপাতাল এবং রিসার্চ ইনস্টিটিউট ঢাকা বলেন ইয়াহিয়া কে বাঁচাতে হলে অপারেশন করতে হবে এতে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। যাহা তার বাবার পক্ষে ব্যয় করা সম্ভব নয়।

ইয়াহিয়া’র বাবা ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জামে মসজিদের পেশ ঈমাম, ইয়াহিয়া’র বাবা ময়নুল হক বলেন আমি প্রতি মাসে ৪হাজার ৫শত টাকা ভাতা পাই, আমি ৪ ছেলে,১ মেয়ে ও স্ত্রী কে নিয়ে অতিকষ্টে জীবন যাপন করছি।এতো টাকা যোগার করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। ছেলেকে বাঁচাতে সমাজের বৃত্তবান ও হৃদয়বান ব্যাক্তিদের কাছে সাহায্য কামনা করেন তিনি। প্রয়োজনে মোবাইল ঃ ০১৭২২ -৮৬৬-৫১৯