পাটগ্রাম সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে বাংলাদেশি নিহত, আহত ১

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে বাবুল মিয়া (২৪) নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার( ৩ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৭ টার দিকে পাটগ্রাম থানার তদন্ত( ওসি) সুমন কুমার মহন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরো জানান, সাইফুল ইসলাম নামে আরেকজনকে ধরে নিয়ে গেছে।  নিহত যুবক বাবুল মিয়া (২৪) ডিমলার পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী কালিগঞ্জ গ্রামের নূর মোহাম্মদের ছেলে। আহত সাইফুল ইসলাম (১৮) পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের ঝাড়সিংহেশ্বর গ্রামের গোলজার হোসেনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, দুজনেই মঙ্গলবার সকালে তিস্তা নদীর চরের ওপারেই পাটগ্রামের দহগ্রাম সীমান্তে ঘাস খাওয়ানোর জন্য গেলে গরু দেখে বিএসএফ গুলি চালায়। নিহত যুবক বাবুল মিয়া সেখানে মাঠিতে পড়ে গেলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ সদস্যরা তাকে ভারতের অভ্যন্তরে নিয়ে যায়।

নিহত বাবুলের মা রুবিনা বেগম বলেন, সকালে গরু নিয়ে গেলে বাবুল আর ফিরে আসে নি। লোকদের কাছে জানতে পেড়েছি বাবুলকে বিএসএফের গুলিতে করে হত্যা করেছে।

এদিকে আরেকজন যুবক সাইফুলকে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ সদস্যরা ধরে নিয়ে গেলেও কেউ বলতে পারছে না তাকে বিএসএফ সদস্যরা তাকে হত্যা করেছে কি না।

ওই দুই হতাহতের ঘটনার ব্যাপারে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ এবং বার্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। বারবার চেষ্টার পরও ৫১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের কর্মকর্তারা কিছু বলেননি।

তবে ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মফিজ উদ্দিন শেখ বলেন, ‘বিএসএফের গুলিতে একজন নিহত ও একজন আহত খবর পেয়ে ওই দুই জনের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হয়েছি।