বিদ্যুৎ না থাকলে জেনারেটর বিষয়ে তিনি বলেন,জেনারেটরের বিষয়টি প্রকল্প বাজেটের মধ্যে নেই

পাটগ্রামে সঠিক নিয়মেই চলছে আইটি প্রশিক্ষণ প্রকল্প

লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলায় বেকার যুবক-যুবতীদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় পরিচালিত আইটি সাপোর্ট টেকনিশিয়ান প্রশিক্ষণ প্রকল্প।

পাটগ্রাম উপজেলার বাঁশকাটা দয়ালটারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের হলরুমে বেকার যুবক-যুবতীদের নিয়ে এ আটটি সাপোর্ট টেকনিশিয়ান কার্যক্রম প্রকল্প সঠিক নিয়মেই চলছে বলে জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন প্রশিক্ষণরত শিক্ষার্থী।

আইটি সাপোর্ট টেকনিশিয়ানের প্রোগ্রাম ম্যানেজার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন,ডিপার্টমেন্ট অফ আইসিটি ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি কর্তৃক যৌথভাবে আমরা টেন্ডারের মাঝে কাজটি আমরা পাই।আমাদের কাজ হলো সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি পরিচালনা করা।এখানে প্রশিক্ষনরত শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন নিয়ম অনুযায়ী ২০০ করে টাকা, সকালে নাস্তা ও দুপুরে ভালমানের খাবার পরিবেশন করা হয়।

আইটি প্রশিক্ষণের প্রধান কোট এডিটর পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল করিম প্রতিনিয়ত মনিটরিং করছে।

মামুন আরও বলেন,এখানে কোন অনিয়মের সুযোগ নেই।নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের সবরকম সুযোগই দেয়া হচ্ছে।তারা আর কোন অভিযোগ করছে না।আমরা সব বিষয়েই সঠিকভাবে পালন করে আসছি।
আইটি বিষয়ে দক্ষ ট্রেইনার আমরা নিয়োগ দিয়ে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করছি।

কম্পিউটার প্রশ্নে তিনি বলেন,একজন শিক্ষার্থী কিভাবে কম্পিউটারের সিপিউ তৈরি করতে পারবে তা সবগুলোই তাদের শেখানো হচ্ছে।
আর যে কম্পিউটার গুলো কাজ করে না সেগুলো ল্যাবের দায়িত্বে যিনি আছেন তিনি বিষয়টি দেখবেন বলে জানান তিনি।তিনি বলেন প্রশিক্ষনের অনিয়মের যে নিউজগুলো প্রকাশিত হয়েছে তা মনগড়া তথ্যের উপর।

বিদ্যুৎ না থাকলে জেনারেটর বিষয়ে তিনি বলেন,জেনারেটরের বিষয়টি প্রকল্প বাজেটের মধ্যে নেই।উপজেলা নির্বাহী অফিসারের যদি কোন সুযোগ থাকে তাহলে তিনি সেই বিষয়টি দেখবেন।

সহকারী প্রোগ্রামার নাবিউল করিম জানান,যেহেতু কাজটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সেহেতু আমাদের দায়িত্ব প্রশিক্ষণ ভালভাবে দিচ্ছে কীনা তা দেখভাল করা।

এ বিষয়ে পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল করিম জানান,কে বা কাহারা খাবার নিয়ে নিউজ করছে তা আদৌ সত্য নয়।কম্পিউটার নষ্টের বিষয়ে তিনিন বলেন,এটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মেরামতের কাজ নয়,এটি প্রতিষ্ঠানের ল্যাব প্রধানের দায়িত্ব।