বন্যায় গাইবান্ধা-বোনারপাড়া রেলপথে ৬ কোটি টাকার ক্ষতি

বন্যার পানির তোড়ে গাইবান্ধার আপ স্টেশন ত্রিমোহিনী-বাদিয়াখালী-বোনারপাড়া পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ফুট রেলের মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এছাড়াও মাঝে মাঝে অসংখ্য গর্তে বন্যার পানি জমে রয়েছে। ফলে গত ১৬ জুলাই মঙ্গলবার থেকে একটানা ২২ দিন যাবত লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে রাজধানী ঢাকার সাথে সরাসরি ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে উত্তরাঞ্চলের রেল যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে লালমনিরহাটের বিভাগীয় প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন জানান, গাইবান্ধার আপ স্টেশন ত্রিমোহিনী-বাদিয়াখালী-বোনারপাড়া পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ফুট রেলের মাটি সরে গেছে। এতে করে রেলওয়ের ৫ থেকে ৬ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এসব মেরামত কাজ দ্রুত চলছে। আজ বুধবার ৯ আগস্ট থেকে লোকাল ট্রেন চলাচল করবে এবং ৮ আগস্ট থেকে লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে রাজধানী ঢাকার সাথে সরাসরি সকল ট্রেন চলাচল করবে।

এ ব্যাপারে ত্রিমোহিনী রেলওয়ে সংলগ্ন রেল যাত্রী তোজাম্মেল হোসেন জানান, বন্যার পানিতে ভেঙে যাওয়া রেলেওয়ের কাজ দ্রুত চলছে। কাজের অগ্রগতি দেখে মনে হচ্ছে খুব শীঘ্রই ট্রেন চলাচল করবে।

এদিকে গত ২৭ জুলাই বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামসুজ্জামান গাইবান্ধা থেকে বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশন পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত রেললাইন পরিদর্শন করেন।

উলে­খ্য, বাংলাদেশ সরকারের রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন গত ২ আগস্ট শুক্রবার ত্রিমোহিনী-বাদিয়াখালী-বোনারপাড়া পর্যন্ত পরিদর্শন করেন। তিনি বলেন, আসন্ন ঈদুল আজহার পূর্বেই উত্তরাঞ্চলের সাথে লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে রেল যোগাযোগ পুনঃ স্থাপিত করা হবে।