দিনাজপুরে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে

ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধন করেন তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আহাদ আলী

দিনাজপু প্রতিনিধি \ ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে ৩০ জুলাই মঙ্গলবার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আয়োজনে ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিস্কার পরি”ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আহাদ আলী। এসময় উপস্’িত ছিলেন জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডাঃ মোঃ পারভেজ হোসেল রানা। প্রধান অতিথি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আহাদ আলী বলেন ডেঙ্গু প্রতিরোধে আমাদের করনীয়-ঘরে এবং আশেপাশে যে কোন পাত্রে বা জায়গায় জমে থাকা পানি সপ্তাহে একবার ফেলে দিলে এডিস মশার লার্ভা মরে যাবে। ব্যবহৃত পাত্রের গায়ে লেগে থাকা মশার ডিম অপসারণে পাত্রটি ঘষে ঘষে পরিস্কার করতে হবে। ফুলের টব, প­াস্টিকের পাত্র, পরিত্যাক্ত টায়ার, প­াস্টিকের ড্রাম, মাটির পাত্র, বালতি, টিনের কৌটা, ডাবের খোসা/নারিকেলের মালই, ফাস্টফুট কন্টেইনার, কটকা, ব্যাটারী শেল ইত্যাদিতে এডিস মশা ডিম পাড়ে। অব্যবহৃত পানির পাত্র ধ্বংস অথবা উল্টে রাখতে হবে যাতে পানি না জমে। দিনে অথবা রাতে ঘুমানো সময় অবশ্যই মশারী ব্যবহার করতে হবে। ডেঙ্গা জ্বরের লক্ষন হিসেবে তিনি বলেন, শরীরের তাপমাত্র হঠাৎ করে ১০৪ ডিগ্রী-১০৫ ডিগ্রী পর্যন্- বৃদ্ধি পায়। মাথা ব্যাথা, মাংস পেশী, চোখের পেছনে, পেটে ব্যাথা এবং হাড়ে বিশেষ করে মের”দন্ডের ব্যাথা, অর”চি, বমি বমি ভাব ও বমি হতে পারে। চামড়ার নিচে রক্তক্ষরণ, চোখে রক্ত জমাট বাধা ইত্যাদি সিন্টম দেখা দিতে পারে। প্রথমিক চিকিৎসা হিসেবে মাথায় পানি দিয়ে জ্বর কমানো জর”রী এছাড়া ভেজা কাপড় দিয়ে গা মুছে চিকিৎসার আওতায় আনতে হবে। উদ্বোধন শেষে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সকল জায়গায় মশা নিধনের ঔষধ ছিটানোসহ পরিস্কার পরি”ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করা হয়।